ইফতারের ৫টি রেসিপি যা মজাদার বানাতে সময় লাগবে আরো বেশি কারণ এখন তো খালি পেটে বানাতে হবে

1. দই বড়া

দই বড়া

উপকরণ :

১. মাষকলাইয়ের ডাল ১ কাপ,২. আদাবাটা ১ চা-চামচ,৩. লবণ ১ চা-চামচ,৪. বিট লবন ১ চা-চামচ,৫. তেতুলের কাঁথ আধা কাপ,৬. চিনি বা গুঁড় ২ টেবিল-চামচ,৭. দই ২,৩ কাপ (ফেটানো),৮. চাট মসলা ১ চা-চামচ।

গুঁড়ামসলার জন্য :

১. শুকনা লালমরিচ ৪,৫টি (টেলে নিন),২. জিরা ৩ চা-চামচ (টেলে নিন)।

এই সব উপকরণ টেলে, আলাদা আলাদা করে গুঁড়া করে রাখুন।

সাজানোর জন্য লাগবে :

১. পুদিনা পাতা,

২. কাঁচামরিচের কুচি,

৩. পেঁয়াজ কুচি,

৪. সব নিয়ে পাশে রাখুন,

৫. সঙ্গে ভাজা নিমকি ভেঙে দিতে পারেন।

প্রণালি :

> মাষকলাইয়ের ডাল আগের রাতে ভিজিয়ে রাখুন। অথবা পাঁচছয় ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে।এখন আধা কাপের চেয়েও কম পরিমাণ পানি দিয়ে মিহি করে বেটে কিংবা ব্লেন্ড করে নিন। যেন থকথকে খামির হয়।

> একটি বাটিতে পানি নিয়ে, ছোট একটি ডালের বড়ি ফেলে দেখে নিন, খামির ঠিক হয়েছে কিনা। ভেসে উঠলে মনে করবেন, খামির একদম ঠিক হয়েছে।

> এবার ডালের সঙ্গে আদাবাটা ও অল্প লবণ দিয়ে মিশিয়ে রাখুন ১০ মিনিট।

> চুলায় তেল গরম করতে দিন। এই ফাঁকে বড় বাটিতে তিনকাপ খাওয়ার পানিতে অল্প লবণ ও তেতুলের কাঁথ গুলে রাখুন।

> তেল গরম হলে মাঝারি রাখুন চুলার আঁচ। এখন ডালের খামির থেকে ছোট এক চামচ নিয়ে বড়ার মতো করে তেলে দিন। বাদামি করে ভেজে তুলে সঙ্গে সঙ্গে তৈরি করে রাখা তেঁতুলের পানিতে ছেড়ে দিন। এতে বড়া নরম নরম হবে।

> এভাবে সবগুলো বড়া তৈরি করে নিন। বড়াগুলো পানি থেকে উঠিয়ে চেপে পানি বের করে পরিবেশন পাত্রে সাজিয়ে রাখুন।

> অন্য একটি বাটিতে দই নিয়ে সেটাতে টালা মসলা থেকে এক চামচ করে মরিচগুঁড়া, জিরাগুঁড়া, তেঁতুলের কাঁথ, বিট লবণ, চিনি, অল্প চাটমসলা দিয়ে দই ফেটে নিন।



YOUR REACTION?

Facebook Conversations



Disqus Conversations