শীতে আপনাকে উষ্ণতা দেওয়ার জন্য ছোট্ট কয়েকটি জরুরী জিনিস।

হেল্‌থ টিপস প্রতিদিন।

. মেয়েরা খুশি এর মত একা এক ধরনের মোজা ব্যবহার করতে পারেন যা আপনি বিভিন্ন টপস বা লম্বা জামার সাথে পড়তে পারেন।

৩. একটি থার্মাল প্যান্ট আপনাকে দিতে পারে যেকোনো সময় আরামদায়ক উষ্ণতা। এই প্যান্টটি আপনি অন্য প্যান্টের নিচে ও পড়তে পারবেন।

৪. একজোড়া কেডস আপনাকে দিতে পারে চামড়ার জুতার থেকেও বেশি উষ্ণতা

৫. হালকা এবং পাতলা কাপড়ের তৈরি শাল গলায় জড়িয়ে নিন আপনার কাঁধ ও গলা ঠান্ডা থেকে রেহাই পাবেন। আপনি পাবেন একটি স্মার্ট লুক যা ফর্মাল ড্রেস এর সাথেও ব্যবহার করা যাবে।

৬. একটি পাতলা উলের চাদর আপনাকে ঘরে বাইরে সব জায়গাতেই উষ্ণ রাখবে।

৭. বর্তমানে উলের তৈরি এক ধরনের নতুন হাত মোজা পাওয়া যায় যা দিয়ে স্মার্টফোন ব্যবহার করার সময় ও সমস্যা হয় না। একজোড়া স্মার্টফোন ফ্রেন্ডলি হাতমোজা আপনার হাতে দিবে উষ্ণ ও আরামদায়ক অনুভূতি।

৮. ছোট একটি ইলেকট্রিক কেটলি শীতের সময় হাতের কাছে থাকলে আপনি যেকোনো সময় চা বা কফি বানিয়ে নিজেও খেতে পারবেন অন্যকেও দিতে পারবেন।

৯. শীতের সময় বের হওয়ার সময় সাথে করে সবসময় একটি কানটুপি নিন। এটি আপনাকে ঠান্ডা জনিত মাথা ব্যথা থেকে মুক্ত রাখবে।

১০. একজোড়া মখমল কাপড়ের তৈরি জুতা আপনার ঘরে ব্যবহার করুন। আপনার পা দুটো থাকুক উষ্ণ।

১১. বর্তমানে মখমলের তৈরি এক ধরনের প্যান্ট বাজারে এসেছে যা জগার্স নামে পরিচিত। এগুলো শীতের জন্য অত্যন্ত আরামদায়ক।

১২. একটি লং কোট আপনাকে দিতে পারে স্মার্ট প্রফেশনাল লুক একইসাথে শীত থেকে মুক্তি।

১৩. ব্যবহার করতে পারেন একটি রুম হিটার যা আপনার শোবার ঘর বা অফিসকে গরম রাখবে।

১২. আপনার গাড়ির সিটে ব্যবহার করতে পারেন ইলেকট্রিক কুশন। এই কুশন আপনাকে দিবে উষ্ণতা ও আরামদায়ক ড্রাইভিং এর অনুভূতি।

১৩. শীতে হটপট ও ভ্যাকিউম পট খুবই উপকারী জিনিস। আপনার চা কফি ও খাবার-দাবার গরম রাখার জন্য হটপট ও ভ্যাকিউম পট এর কোন বিকল্প নেই।

১৪. শীতে আপনার হাতের কাছে রাখুন পেট্রোলিয়াম জেলি অথবা ভেসলিন যা আপনার ত্বক ও ঠোঁট ফাটা রোধ করবে।

১৫. জ্যাকেট, সোয়েটার আর কম্বল নিশ্চয়ই এই শীতে আপনার নিত্যদিনের সঙ্গী।

health tips