দ্রুত ওজন কমানোর ১৬টি বাস্তব ও দারুন টিপস।

স্বাস্থ্য।

আমরা কিছু মানুষকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে তারা কিভাবে দ্রুত ওজন কমিয়েছিলেন। ১৬ জন মানুষ তাদের জীবনের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে ষোলটি দারুন টিপস দিয়েছেন। টিপস গুলো নিচে দেওয়া হল।

2. দুই

দুই

আপনার খাবারের মধ্যে কতটুকু ক্যালরি আছে তা জানার চেষ্টা করুন এবং সেভাবেই জেনে খাবার গ্রহণ করুন এতে যদি খাবার কম হয়ে ভাববেন না যে আপনি খাবার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

3. তিন

তিন

 অবাস্তব খাদ্যাভ্যাস এর লক্ষ্য ঠিক না করে বাস্তবে যেটা আপনার পক্ষে অর্জন করা সম্ভব সেই লক্ষ্য ঠিক করুন।

4. চার

চার

বিভিন্ন পানীয় যেমন কোকাকোলা স্প্রাইট এই জাতীয় পানীয় পান করা থেকে নিজেকে বিরত রাখুন এবং বেশি বেশি পানি পান করুন

5. পাঁচ

পাঁচ

এমন একজন মানুষের সাথে কথা বলুন যে আপনাকে ওজন কমাতে এবং সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে নিরলসভাবে উৎসাহিত করবে। অবশ্যই মোটাদের সাথে নয়, হা হা হা। 

6. ছয়

ছয়

বেশি বেশি হাঁটার জন্য নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন, যদিও শুরুতে আপনি খুবই কম হাঁটতে পারবেন হয়তো দেখা যাবে দশ কদম বা বিশ কদম হেঁটেছেন। একটু হেঁটেই মনে হবে আপনার যান যায় যায় অবস্তা। পরবর্তীতে আপনার হাটাহাটি না করলেই বরং খারপ লাগবে।

7. সাত

সাত

নিজের জীবন যাত্রাকে এমন ভাবে বদলাবেন না যাতে আজকে পুরোটাই আগের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন হয়ে যায়। ছোট ছোট এবং ধারাবাহিকভাবে পরিবর্তন করুন।

8. আট

আট

আপনার উন্নতির ধাপ গুলোকে আস্তেআস্তে চিহ্নিত করুন কিভাবে ধিরে ধিরে উন্নতি হচ্ছে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন, যেমন আপনিপ্রতিদিন কতটুকু হাঁটছেন এবং ব্যায়াম করছেন এবং আপনার খাদ্য তালিকা কিভাবে আপনাকেপ্রভাবিত করছে। এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখা উচিত।

9. নয়

নয়

খাদ্যাভ্যাস ও ব্যায়ামের জন্য নিজেকে উৎসাহিত করুন এবং লক্ষ্য ঠিক করুন। এমন ভাবে ব্যায়াম করুন এবং খাবার খান যাতে আপনি উপভোগ করতে পারেন।

10. দশ

দশ

আপনার খাবারকে জানুন এবং ঠিক করুন কিভাবে স্বাস্থ্যকর খাবার দিয়ে অস্বাস্থ্যকর খাবার গুলোকে দূর করা যায়।

11. এগারো

এগারো

খাদ্যাভ্যাস ও ব্যায়ামের জন্য নিজেকে উৎসাহিত করুন এবং লক্ষ্য ঠিক করুন। এমন ভাবে ব্যায়াম করুন এবং খাবার খান যাতে আপনি উপভোগ করতে পারেন।

এছাড়া

*ধৈর্য ধরুন কারণ আপনার শরীরের পরিবর্তনগুলো সহসাই আসবে না।

*খেয়াল রাখুন আপনার ব্যায়াম এবং খাদ্যাভ্যাস যেন প্রতিদিন রুটিনমাফিক এবং ধারাবাহিকভাবে চলে।

* অনেক সময় আমরা বোর ফিল করি তখন বিভিন্ন ধরনের খাদ্য খাই অথবা দেখা যায় যে যে কোন একটি খাবারের প্রতি আমরা অনেক বেশি দুর্বল তাই আবেগপ্রবণ হয়ে এই খাবারটি বেশি করে খেতে থাকি, এ বিষয়ে আমাদেরকে সতর্ক হয়ে যেতে হবে।

* সম্ভব হলে একজন ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক এর তত্ত্বাবধানে ব্যায়াম করুন যে আপনাকে জিমে অস্বস্তি অনুভব করা থেকে দূরে থাকতে সাহায্য করবে এবং আপনাকে পরিবেশের সাথে মানিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

* এটাও মনে রাখবেন যে আপনি দ্রুত ফলাফল পেতে অথবা স্বাস্থবান হতে অথবা শক্তিশালী হতে জিমে যাওয়া অথবা ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক নিয়োগ করা বাঞ্ছনীয় না।

* পুষ্টির ছোট ছোট ধাপ সম্বন্ধে জানুন যাতে আপনি আপনার খাবার কে ভালোভাবে তৈরি করতে পারে।

*সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আপনার ফলাফল সহসাই আসবে না কারন আপনি চাইলেও অনেক কিছু ইচ্ছা করলেই পরিবর্তন করতে পারবেন না।

how to lose weight fast how to lose weight easy step