জীবন পরিবর্তনে নতুন বছরে ১০টি ছোট উপায়।

জীবনধারা।

1. অনেক সময় আমাদের ব্যাগে অথবা পকেটে কয়েন অথবা খুচরা পয়সা থেকে যায়।

অনেক সময় আমাদের ব্যাগে অথবা পকেটে কয়েন অথবা খুচরা পয়সা থেকে যায়।

অফিস অথবা ক্লাসশেষে আমাদের পকেটে দিনশেষে কয়েন অথবা খুচরা টাকা পড়ে থাকে । এ টাকা গুলোকে আমরা চাইলেই জমিয়ে রাখতে পারি । একটি পট অথবা বৈয়ামে আমরা সারাবছর টাকাগুলো সঞ্চয় করে রাখতে পারি । বছর শেষ দেখা যাবে ভাল একটা টাকা জমে গেছে। যা দিয়ে আপনি আপনার পছন্দ মতো কিছু একটা কিনে ফেলতে পারেন।

2. চেষ্টা করবেন ৩ থেকে ৪টি ফোন নাম্বার মুখস্থ করে রাখার।

চেষ্টা করবেন ৩ থেকে ৪টি ফোন নাম্বার মুখস্থ করে রাখার।

কর্মজীবী মানুষ এবং আমরা অনেকেই সারাদিন অফিসের কাজে অথবা ক্যাম্পাস জীবনে ব্যস্ত থাকি । তাই আমাদের উচিত আমাদের বাবা-মা , পার্টনার অথবা রুমমেটের ফোন নাম্বার মুখস্থ করে রাখা । যাতে আমাদের ফোন ছিনতাই হলে অথবা চার্জ শেষ হলে তাদের ফোন দিতে পারি । অন্তত তারা জেনো চিন্তা মুক্ত থাকে ।

3. অবসর সময়ে ঘুরে আসুন পুরনো বন্ধুর বাড়ি থেকে।

অবসর সময়ে ঘুরে আসুন পুরনো বন্ধুর বাড়ি থেকে।

সে হতে পারে রাখাল ছেলে , হতে পারে কলজের রুমমেট অথবা আপনার স্কুলের মধ্যবিত্ত প্রিয় বন্ধুটি । কোন ব্যাপার না ,তারা কে। কিন্তু মানুষের সাথে সবসময় যোগাযোগের ফলে আপনি পাবেন , অন্যরকম ভালবাসা , আনন্দ , মজার মুহূর্ত । ফ্রেন্ডশিপের কারনে আপনি কিছু নতুন মানুষকে চিনতে পারেন এবং জানতে পারবেন ।

4. চেষ্টা করবেন রাতে খাবারের পর বাসন প্লেট ধুয়ে রাখতে।

চেষ্টা করবেন রাতে খাবারের পর বাসন প্লেট ধুয়ে রাখতে।

প্রতিদিন অবশ্যই রাতে খাবার পরে , খাবার প্লেট –বাসন পরিষ্কার করে রাখতে । যাতে সকালে অনেক কাজ একসাথে না করতে হয় । যাতে আপনি সকাল এর নাস্তাটা ফ্রেশ ভাবে তৈরি করতে পারেন ।

5. চেষ্টা করবেন প্রতিদিন একই সময় ঘুম থেকে উঠতে।

চেষ্টা করবেন প্রতিদিন একই সময় ঘুম থেকে উঠতে।

৬/ চেষ্টা করবেন প্রতিদিন একই সময় ঘুম থেকে উঠতে 

প্রতিদিনের মতই চেষ্টা করবেন রাতে ১১ টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়তে এবং প্রতিদিন একই সময় ঘুম থেকে উঠতে । যার ফলে আপনি পাবেন সারাদিন কাজের প্রতি এনার্জি । এবং আপনার স্বাস্থ্য থাকবে আরো ভালো । 

6. যেকোনো কাজের পূর্বে লিস্ট করে নিন।

যেকোনো কাজের পূর্বে লিস্ট করে নিন।

যেকোনো কাজের আগে যেমন , বই কেনার আগে অথবা কেনাকাটার আগে , বাজার করার আগে আপনি একটি লিস্ট তৈরি করে নিবেন । জেনো আপনাকে হিমশিম খেয়ে যেতে না হয় । 

7. শখের কাজ করতে পারেন

 শখের কাজ করতে পারেন

নিজের হাতে করতে পারেন শখের কাজ । ফুলের বাগান , রান্না করা , ঘর  সাজানো , এবং শখের জিনিস তৈরি করতে যা মনকে ভাল রাখবে ।

8. স্বাস্থ্যকর ও সহজ খাবার তৈরি করুন।

স্বাস্থ্যকর ও সহজ খাবার তৈরি করুন।

সকালের খাবারের জন্য তৈরি করুন স্বাস্থ্যসম্মত ও সহজ খাবার । যেমন , ডিম স্যান্ডউইচ , জেলি রুটি, যা হবে মুখরোচক খাবার ও পুষ্টিগুণে ভরা । 

9. এমন কিছু পড়তে পারেন যাতে পাবেন আনন্দ।

এমন কিছু পড়তে পারেন যাতে পাবেন আনন্দ।

গল্প , উপন্যাসের পাশাপাশি পড়তে পারেন মজার জিনিস । প্রিয় শিল্পীর জীবনী , শহরের জীবন , বিজ্ঞানে আকাশ কেন নীল  । এছাড়া প্রতিবছর জেতে পারেন বইমেলায় । 

10. বছর শেষে প্রতিমাসে ছুটির উপহার হিসেবে একটি উপহার কার্ড কিনতে পারেন।

বছর শেষে প্রতিমাসে ছুটির উপহার হিসেবে একটি উপহার কার্ড কিনতে পারেন।

যদি আপনার সঞ্চয় একাউন্ট থেকে টাকা তুলতে কঠিন হয়ে পড়ে তবে আপনি চাইলে মাসে একবার আমাজান , আমেক্স , মাস্টারকার্ড , অথবা ভিসা কার্ড উপহার হিসেবে কিনতে পারেন । এবং বছরের শেষ পর্যন্ত গোপন করে রাখবেন । যাতে ছুটির ঋতুতে প্রিয়জনকে নিজের পছন্দ মত উপহার কিনে দিতে পারেন ।

make life easy 2019 helpful tips for life