অবিশ্বাস্য এক ব্যাপার!! যা জানলে বদলে যেতে পারেন আপনিও।

জানা অজানা।

হাল এলরোড,যাকে ৩ ই ডিসেম্বর, ১৯৯৯ সালে একটি গাড়ি ধাক্কা মারে,তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ডাক্তার কিছুক্ষন পর তাকে মৃত ঘোষনা করে।কিন্তু পাক্কা ছয় মিনিট পর তিনি তার জ্ঞান ফিরে পান এবং কোমায় চলে যান।কিছুদিন পর কোমা থেকে ফেরার পর ডাক্তার ঘোষনা দেন যে হাল আর কখনো হাটাচলা করতে পারবেনা,কারন তার পুরা মেরুদণ্ড এবং ১১টি হাড় ভেঙ্গে গিয়েছিল।

এর পর ডাক্তারের হিসাব অনুযায়ী তার আর কখনোই নিজের পায়ে হাটা ত দূরে থাক দাড়ানোর ও কথা না।কিন্তু এই মানুষ টি তার কিছু অভ্যাস এর কারনে শুধু দাঁড়ায় না দৌড়ায় অব্দি পর্যন্ত এবং পরবর্তী তে মোটিভেশনাল বক্তব্য অব্দি দিয়েছে।

জ্বি,আপনি ঠিক ই শুনছেন।সকালে ঘুম থেকে উঠে তিনি এমন কিছু অভ্যাস বানিয়েছিলেন যাতে তিনি সম্পূর্ন ঠিক হতে পেরেছিলেন।তার কাছে তার অভ্যাস গুলো এতটাই কার্যকারী মনে হয়েছিল যে পরে তার উপর তিনি একটি বই লিখেন এবং নাম দেন," The Miracle Morning ".

বই এ তিনি ছয়টি অভ্যাস এর কথা লেখেন যার কারনে তিনি আজকের পর্যায়ে আছেন।এই ছয় টি শব্দ কে তিনি একটি শব্দে পরিনত করেছেন যা হল SAVERS.

S দিয়ে বুঝানো হয় Slience বা নিশব্দঃতা।লেখক নিশ্চুপতা দ্বারা বুঝিয়েছেন যে শান্ত মনে মেডিটেশন বা প্রার্থনা করা।অনেকেই সকালে উঠে সারাদিনের দুশ্চিন্তা নিয়ে বসেন।কিন্তু সকালে উঠেই উচিত মেডিটেশন বা প্রার্থনা করা।এতে মন শরীর দুই ই সুস্থ থাকে।

A হল Affirmation. নিজের ভিতরে সমস্ত পজিটিভ জিনিস গুলো আনার জন্য সকালের চেয়ে ভাল সময় আর নেই।আপনার মধ্যে কি কি পরিবর্তন করা উচিত,কি করলে ভাল হবে কি খারাপ হবে তার একটি লিস্ট করার এবং সকাল বেলা সেসব নিয়ে ভাবুন এবং সেই অনুযায়ী কাজ করুন

V হলো Visualization.এটি হল affirmation এর একটি ভিন্ন রূপ।যদি বলি affirmation হল  আপনার জীবনের অডিও ক্লিপ এবং visualization হল আপনার জীবনের ভিডিও ক্লিপ।এটি একটি ভিডিও স্বরুপ।আপনি কিভাবে আপনার জীবন গড়বেন তা আপনি ভিজ্যুলাইজ করতে পারেন।

E হল Exercise.সকালে উঠে এক্সারসাইজ করার মত ভাল কাজ আর নিই।এটি আপনার মস্তিষ্ক এ অক্সিজেন সরবারহ বৃদ্ধি করে এবং সারাদিনের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

R হল Reading.প্রতিদিন সকালে উঠে কিছু পড়ার চেষ্টা করুন।প্রতিদিন ১০ পৃষ্ঠা করে পড়লেও বছরে ৩৬৫০ পৃষ্ঠা,খুব ভাল অভিজ্ঞতা এটি।

লাস্ট পার্ট হল Scribing বা writing. প্রতিদিন সকালে নিজেকে সাজানোর জন্য কিছু লেখা লিখুন।লেখক তার লেখা কে দুইটি ভাগে ভাগ করেছিল।এক টি, এতদিনে সে কি পেল বা কি কি জেনেছে।আর পরের টি হল আপনি ভবিষ্যতে কি কি করবেন।

পরিশেষ বলতে চাই আপনি ও এই ছয়টি অভ্যাস গড়তে পারলে আপনার জীবনে সাফল্য নিশ্চিত।