আজ যে কারণে বৃদ্ধি পেলো সূচক

গ্রামীণফোন, বিট্রিশ আমেরিকান টোব্রাকো, ব্র্যাক ব্যাংক ও স্কয়ার ফার্মার মত কোম্পানিগুলোর. . .

আজ বুধবার অব্যাহত বিক্রয় চাপ থাকা সত্ত্বেও দিনশেষে কিন্তু ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইক্স বেড়েছে। এসময় শরীয়াহ্ ভিত্তিক কোম্পানিগুলোর তাদের মূল্য সূচক কমলেও বেড়েছে ডিএস-৩০ সূচক।

উলেক্ষ বড় মূলধনী কোম্পানি গ্রামীণফোন, বিট্রিশ আমেরিকান টোব্রাকো, ব্র্যাক ব্যাংক ও স্কয়ার ফার্মার মত কোম্পানিগুলোর শেয়ার দরের উত্থানে দিনশেষে ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক বেড়েছে।

এসময় ডিএসই’র সূচকের উত্থানে নিয়ামক হিসাবে কাজ করেছে গ্রামীণফোন। বুধবার এ কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ০.২১ শতাংশ বা ১ টাকা। কিন্তু ডিএসই’র প্রধান সূচকের উত্থানে কোম্পানিটি ২.২৯ পয়েন্ট শক্তি দিয়েছে।

এসময় বিট্রিশ আমেরিকান টোব্রাকোর শেয়ার দর ০.৬৪ শতাংশ বা ২১.৬ টাকা বাড়ায় বাজারের সূচক বেড়েছে ২.২০ পয়েন্ট।

অন্যদিকে, ব্যাংকিং খাতের ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ার দরের ইতিবাচক প্রবণতায় পুঁজিবাজারের প্রধান সূচক বেড়েছে ২.১৭ পয়েন্ট।

যদিও ইসলামী ব্যাংকের বড় ধর পতন আজ (বুধবার) বাজারের পতনকে দীর্ঘায়িত্ব করেছিল। এসময় ডিএসইতে ইসলামী ব্যাংকের শেয়ার দর কমেছে ৪.৭৩ শতাংশ বা ১.৪ টাকা। এসময় কোম্পানিটির দর পতনের প্রভাবে ডিএসই’র প্রধান সূচক কমেছিল ৩.৮৫ পয়েন্ট। এছাড়া ব্যাংক এশিয়ার দর পতনের প্রভাবে ডিএসই’র প্রধান সূচক কমেছিল ১.১৮ পয়েন্ট।

এদিকে, বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৪৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। আর দাম কমেছে ১৫২টির। এবং দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৭৯৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৬৭ পয়েন্টে অবস্থা করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৪৮ পয়েন্টে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে সর্বমোট ৫৪৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৫৫৫ কোটি ২২ লাখ টাকা। সে হিসাবে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৮ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ার। প্রতিষ্ঠানটির ৪৯ কোটি ২৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইফাদ অটোসের ৩২ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার। আর লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইউনিক হোটেল।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- বেক্সিমকো, আমরা নেটওয়ার্ক, ড্রাগন সোয়েটার, মুন্নু সিরামিক, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, জাহিন স্পিনিং এবং লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

share market bd share market news