১৫টি টিপস যা আপনার বাঁচবে সময় ও বেড়ে যাবে রান্নার স্বাদ ও পুষ্টিগুণ

আমরা কি সুদ বেঁচে থাকার জন্য যা ইচ্ছা তাই খেয়ে থাকি? নাকি সুন্দর ভাবে বেঁচে থকার জন্য খবার গ্রহণ করা? আমাদের জেনে রাখা ভাল কি কি উপায়ে রান্না করলে পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাবারটি আপনি সহজেই পেতে পারেন আর তা সাথে বাঁচাবে আপনার মূল্যবান সময় ও।

১। যতোটুক পারা যায় পাতিলে ঢাকানা দিয়ে রান্নাকরুন, এতে খাবারের পুষ্টিমান ঠিক থাকে।

২। আপনারা মাংস যদি রান্না করেন সে ক্ষেত্রে রান্নারশুরুতেই লবণ না দিয়ে রান্নার মাঝামাঝি সময়ে লবণ দিয়ে ভালভাবে নাড়ুন। এরপর দেখেনিন পরিমান ঠিক হল কিনা।

৩। তরকারির অনেকেই ঘন ঝোল পছন্দ করেন, চাইলেকিছু কর্ণ ফ্লাওয়ার পানিতে গুলে ঢেলে দিন অথবা মিষ্টি কুমরা বেটে দিতে পারেন। লক্ষ্যরাখুন যেন কর্ণ ফ্লাওয়ারের মিশ্রণটি ভালমত তরকারির সাথে মিশে যায়।

৪। চাল ধোয়ার পর ১০ মিনিট রেখে দিয়ে তারপররান্না করুন অথবা রান্নার সময় ১ চা চামচ রান্নার তেল দিয়ে দিন। দেখবেন ভাত সুন্দরঝরঝরে হয়েছে।

৫। মুরগীর ফ্যাট এড়াতে চাইলে চামড়া ছাড়িয়েমুরগি রান্না করুন। কারন মুরগির চামড়াতেই প্রধান ফ্যাট থাকে।

৬। সবুজ সবজি রান্নার সময় সবুজ রং ঠিক রাখতেচাইলে এক চিমটি চিনি দিন।

৭। রান্না করার জন্য একদিন আগেই মাংস সেদ্ধ এবংঠান্ডা করে ফ্রিজে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন।

৮। রান্নার সময় গরম পানি ব্যবহার করুন।

৯। ফ্রিজের মধ্যে আঁশটে গন্ধ দূর করতে ফ্রিজে একটুকরো কাঠ কয়লা রেখে দিন।

১০। মাংস তাড়াতাড়ি সেদ্ধ করতে চাইলে খোসাসহ একটুকরো কাঁচা পেঁপে তরকারীতে দিন।

১১। মাছ, মাংস বা ডিমের ঝোলে লবণবেশি হয়ে গেলে তরকারিতে কয়েকটি সিদ্ধ আলু ভেঙে দিন। স্বাদ ঠিক হয়ে যাবে।

১২। মুরগির মাংস বা কলিজা রান্নাইয় ১ টেবিল চামচসিরকা দিন। এতে মাংসের গন্ধ থাকবে না আবার তাড়াতাড়ি সিদ্ধও হবে।

১৩। মাছ ভাজার সময় তেল ছিটা রোধ করতে একটু লবণছড়িয়ে দিন।

১৪। বেরেস্তা করার সময় পেঁয়াজ ভেজে নামানোর আগেসামান্য পানি ছিটিয়ে দিন এতে পেঁয়াজ তাড়াতাড়ি লালচে হবে।

১৫। কাঁচা মাছ বা মাংস ছুরি-চপিং বোর্ডে কাটতেচাইলে বেশ কিছুক্ষণ আগে থেকেই পানিতে ভিজিয়ে নরমাল করে নিন।