মানব জীবনে ধ্যানের উপকারিতা

ধ্যান এমন একটি ব্যপার যার প্রতিটি ইস্তরে ইস্তরে আছে শুধুই উপকার আর উপকার,
আপনি আপনার নিজের ভিতরটা বদলে ফেলুন, বদলে যাবে আপনার পৃথিবী।

যদি চান মনকে নিয়ন্ত্রণ করতে তবে শুরু করে দিন ধ্যান
যদি চান সুস্থ থাকতে তবে শুরু করে দিন ধ্যান 
যদি চান উন্নতি করতে  শুরু করে দিন ধ্যান
যদি চান জীবন উপভোগ করতে শুরু করে দিন ধ্যান
যদি চান সুখী হতে  শুরু করে দিন ধ্যান

ধ্যান এমন একটি ব্যপার যার প্রতিটি ইস্তরে ইস্তরে আছে শুধুই উপকার আর উপকার


ধ্যান খুবই সহজ একটি কাজ। এরচে সহজ কাজ এই পৃথিবীতে আর আছে বলে আমার মনে হয়না।

আমরা সবাই নিজের ইচ্ছায় হোক বা অনিচ্ছাকৃত ভাবে একসাথে অনেক বিষয়ী আমাদের মাথায় ঘুরপাক খায় ও ব্যস্ত রাখি আমাদের মস্তিককে । ধ্যানের সময় আমাদের ঠিক একটি বিষয়নিয়ে ভাবতে হবে, সেই ব্যপারটা নিজের অন্তর চক্ষু দিয়ে আমাদের উপলব্ধি করতে হবে।
অথবা কিছুই ভাববো না, চোখ বন্ধ করে নিজের ভিতরে নিঃশ্বাস এ বাতাস যাচ্ছে আর আসছে সেটা খেয়াল করবো,
অথবা চোখ বন্ধ করে ১ থেকে ১০০০ উল্টো করে গুনবো।
মোট কথা চিন্তা-ভাবনাগুলোকে সীমিত করবো নয়তো একেবারে বেধে ফেলবো, এটাই ধ্যান।

ধ্যান করার সময় আপনার মনে হবে আপনার চিন্তা ভাবনার উপর কোন কন্ট্রোলনেই, নানা রকম ভাবনা আপনার মাথা আসছে, আসছে ঘরে এর চিন্তা, বাহিরের চিন্তা কে টাকাপাবে, কার কাছে আপনি টাকা পাবেন, কিভাবে নিজেকে সফল করবেন ,আপনি চেষ্টা করুন এই সববিষয় আপনার মাথা থেকে দূরে সরিয়ে দিতে। কিছু দিনের মধ্যেই আপনার মধ্যে একটা পরিবর্তন আসবে, ঠিক তখনি পাবেন ধন্যার মজা, আপনার জীবনে চলে আসবেন ধিরে ধিরে শান্তি ।এর পর আপনার মনের উপর আপনার একটা কন্ট্রোল চলে আসবে, অস্থিরটা কমে আসবে, আসবেমানুষিক শান্তি ও প্রশান্তি ।সুখ আর সুস্থতা আর ভালো লাগা এই ৩টি জিনিস আপনার নিত্যসঙ্গী হবে, আপনি বিশ্বাস করুন আর নাই করুন।।

তবে সাবধান নিজের ধ্যান ধারা আপনি যদি মনে করেন আপনার ধ্যানদারা অন্নের মনে কে কন্ট্রোল করবেন তবে এটি আপনার জন্য সুখকর হবে না। কারন এটা হচ্ছে সম্পূর্ন প্রাকৃতিক ব্যপার আর প্রকৃতি অন্যের ব্যপারে নাক গলানো পছন্দ করে না।

ধ্যান করার নিয়মঃ দাড়িঁয়ে, বসে, শুয়ে (তবে হেঁটে হেঁটে করা যাবেনা)। যে কোন সময় আপনি করতে পারবেন খাবার আগে বা পরে, সকালে বা বিকালে বা রাতে এবং যতক্ষন ইচ্ছা। ধ্যানের তেমন কোন কোন বিধি নিষেধ নেই। তবে দিনের শুরু দিকে করলে বাকীটা সময় আপনার ভালই কাটবে । প্রতিদিনের ৫মিনিটের ধ্যানও আপনাকে দিতে পারে একটি নিয়ন্ত্রিত সুশৃংখল জীবন। অনাবিল প্রশান্তি। যা আপনি লাখ লাখ টাকা খরচ করেও একবিন্দু পাবেন না।


সুখ-শান্তি। কারন আপনার সুখ-শান্তি অন্য কোথাও নয় আপনার ভিতরেই বাস করে, যদি সেটা আপনি আপনার মতো করে নিতে পারেন।
মনে রাখবেন. পৃথিবীতে যা কিছু মানুষের জন্য সর্বোচ্চ গুরুত্ত্বপূর্ন তা সৃষ্টকর্তা খুব সহজলভ্য ও বিনা খরচে দিয়ে রেখেছেন।

পরিশেষ এ বলা যায় জীবনটা সর্ব শক্তিমান আল্লাহ্‌ দেওয়া, এটি নিয়ন্ত্রনকারী ও তিনি। সবাই ভালথাকবেন ধন্যবাদ।