প্রিয় চাকরি ও আমি।

বাংলা নিউজ।

বছরের পর বছর চাকরি করছেন। বেশ তো কেটে যাচ্ছে নিরাপত্তার চাদর মুরিয়ে। মাস গেলেই নির্দিষ্ট অংকের বেতন। ঘন্টা মাপা অফিস। নির্দিষ্ট কিছু কাজ। বাড়তি কিছু সুযোগ সুবিধা। সেই ছোট বেলার বড় বড় স্বপ্নগুলো এখন আর দেখতে হয়না। বড় হয়ে যা হবেন বলে ভেবেছিলেন অবশ্য তা এখন আর আপনাকে তাড়িয়ে বেড়ায় না। আপনার সমস্ত স্বপ্নগুলো এখন একটা চাকরিকে ঘিরেই। সংসার, সচ্ছলতা, ভবিষ্যত সব কিছুই এই চাকরি।

আপনি মন প্রাণ দিয়ে চাকরিকে ভালবেসে ফেলেছেন। না হলেও ভালবাসতে হচ্ছে। কারন ওই চাকরিই আপনার সম্বল। আপনার নিশ্চয়তা। কিন্তু বুঝতেও পারছেন না, আপনি যে প্রতিষ্ঠানের উন্নতির জন্য দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন সেই প্রতিষ্ঠান আপনাকে কখন ভুলে যাবে। আপনার সর্বময় প্রশান্তি, চাকরিই আপনাকে বাঁচিয়ে রেখেছে। কিন্তু আপনার ভিতরে থাকা প্রতিভাকে তো গলা টিপে হত্যা করে চলেছে প্রতি মুহুর্তে, সে খবর কি রেখেছেন?

প্রতিদিন অফিস টাইমে যাতায়াতের জন্য বাসে ঝুলে ঝুলে আপনার পুরো লাইফটা যে ঝুলিয়ে দিয়েছেন সে চিন্তা কি করেছেন? করেন নি। মাস গেলে যে বেতন দিয়ে আপনার শ্রমটা কিনে নিয়েছে, সে আপনার মানসিক নিয়ন্ত্রনও নিয়ে নিয়েছে এটা বুঝতেও পারেননি। প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে চাকরিরত অবস্থায় বিয়ে করলে মালিকপক্ষ নীরবে খুশি হয় বিশেষ করে মার্কেটিং এর চাকরিগুলোতে। জানেন কেন? চাকুরী ছেড়ে দেওয়া, চাকরি বদলের প্রবণতা কমে যায়। সেই সাথে মালিকপক্ষ আপনার সর্বোচ্চ টুকু লুফে নেওয়ার প্রচেষ্টায় সফলতা পায়।