"কিম জং উন আমাকে 'বৃদ্ধ' বলে অপমান করেছে? কই আমি তো তাকে কখনোই “মোটা ও খাটো” বলিনি! আর হ্যা আমি সব সময় তার বন্ধু হওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টায় করেছি,হয়ত একদিন আমরা বন্ধুও হয়ে যাব"
উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন কে টুইটে "খাট এবং মোটা," বলে সম্বোধন করেছেন  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

 প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গতকাল উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন কে নিয়ে টুইটারের মাধ্যমে কিছু অসন্মানকর কথা প্রচার করেন। কিন্তু পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন যে সম্ভবত  তিনি এবং উত্তর কোরিয়ার একনায়ক হয়তো একদিন বন্ধু হতে পারবেন।

 

ভিয়েতনামের হানয়ে পৌঁছানোর পর তিনি  টুইট করেন , "কিম জং উন  আমাকে 'বৃদ্ধ' বলে  অপমান করেছে? কই আমি তো তাকে কখনোই “মোটা ও খাটো” বলিনি! আর হ্যা আমি সব সময় তার বন্ধু হওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টায় করেছি, হয়ত একদিন আমরা বন্ধুও হয়ে যাব"। 

ট্রাম্প তার উদ্ভট টুইট অনুসরণ করে সাংবাদিকদের বলছে যে তার এবং স্বৈরশাসকের বন্ধু হওয়াটাএকটি "ভাল বিষয়" হবে।

 "এটি হতে পারে একটি আশ্চার্য বিষয় কিন্তু এটিরএকটি সম্ভাবনা আছে।" 

ট্রাম্প ভিয়েতনাম প্রেসিডেন্ট সঙ্গে একটি প্রেস কনফারেন্সের সময় বলেন, এটা হবে "খুবই ভালো যদি এটি কখনো হয়"। 

গত শনিবার উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হতে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছিল। বিবৃতিতে বলা হয় যে, "ট্রাম্পের মতো একটি পুরানো পাগল দ্বারা অচেতন মন্তব্য আমাদের ভয় দেখাতে পারবে না অথবা আমাদের অগ্রগতিও বন্ধ করতে পারবে না।" 

বিবৃতিটি আসলে গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ায় ট্রাম্পের ভাষণের বিপক্ষে একটি প্রতিক্রিয়া , যে ভাষণের মাধ্যমে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি উত্তর কোরিয়াকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র দেশদের নিয়ে কোন সিদ্ধান্তে যাওয়ার ব্যপারে সতর্ক করেন। তিনি বলেছিলেন, “আমাদের অবজ্ঞা করো না, এবং কোন কিছুর চেষ্টা করো না।"

 এটি ট্রাম্প এবং কিমের মধ্যে প্রথম বাকবিতণ্ডা নয়। ট্রাম্প ইতিপূর্বেই কিমকে তার জাতিসংঘের বক্তৃতায় ও টুইটে “রকেট ম্যান” নামে সম্বোধন করেন।

কিম তার এই অপমানের প্রতিক্রিয়ায় ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে একটি বিবৃতিতে বলছে যে "আমি অবশ্যই মানসিক ভাবে বিকারগ্রস্থ ও মার্কিন ভীমরতিগ্রস্থ বৃদ্ধ কে আগুন দিয়ে দমন করতাম।"

ট্রাম্প প্রায়ই বিদেশী নেতার সঙ্গে তার ব্যক্তিগত সম্পর্ককে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তর মার্কিন পররাষ্ট্রনীতির সাথে সমতুল্য করে ফেলেন। জাপানের প্রধানমন্ত্রীর শিনজো আবের সাথে তাঁর বন্ধুত্বের বিষয়ে এবং চীনের জি জিংপিংয়ের সাথে তার উষ্ণ সম্পর্কের কথা প্রায়ই বলে।

ভিয়েতনাম থেকে অন্য একটি টুইটে, ট্রাম্প ঘোষণা করেছেন যে ওবামা রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে কাজ করতে ব্যর্থ হয়েছেন কারণ "পুতিনের সাথে তার কোন রসায়ন ছিলনা।"

YOUR REACTION?

Facebook Conversations


Disqus Conversations