ইউটিউবের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন ও বিধি নিষিদ্ধ।

প্রথমে দেখার বিষয় হলো উপাজিত অর্থের. ..

আমাদের কাছে অনেক পাঠকরা বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য প্রশ্ন করেন থাকেন, সেই সব প্রশ্নের মধ্যে আজ একটির উত্তর দেওয়া হচ্ছে। 

প্রশ্ন ইউটিউব এ ভিডিও আপলোডের মাধ্যমে যে টাকা উপার্জন হয় তা কি হালাল?

প্রশ্ন  ইউটিউব এ ভিডিও আপলোডের মাধ্যমে যে টাকা উপার্জন হয় তা কি হালাল?

উত্তর: প্রথমে দেখার বিষয় হলো উপাজিত অর্থের উৎপত্তি কোথায় ? ইউটিউব কে গুগল টাকা দিচ্ছে! মুলুত গুগলের একটি বিশেষ সার্ভিস–গুগল এডসেন্স। এর মাধ্যমে তারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন অর্থের বিনিময়ে ইউটিউবসহ বিভিন্ন ওয়েবসাইটে তা সম্প্রচার করে।

আর ওখান থেকে একটা নির্ধারিত একটা অংশ তারা ইউটিউ গ্রাহকদের দিয়ে থাকেন। সুতরাং ঐ বিজ্ঞাপনগুলো যদি অশ্লীল ও হারাম পণ্যের হয়, তাহলে তা থেকে প্রাপ্ত টাকা কোন ভাবেই হালাল হবে না। বরং, হারাম অর্থ উপার্জনের পাশাপাশি আপনি হারামের প্রচার ও সহযোগিতা করার গোনাহ সমান কাজ করছেন। মহান আল্লাহ বলেন, ‘যারা মুমিনদের মধ্যে অশ্লীলতার প্রসার কামনা করে, নিশ্চয়ই তাদের জন্য ইহকালে ও পরকালে রয়েছে বড়ই যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি’।   (সুর নূর, আয়াত : ১৯)

এই ক্ষেত্রে এডসেন্স’ এ সেনসিটিভ অপশন বন্ধ করার অপশন দেওয়া আছে। যদি কেউ সেটা বন্ধ রেখে অনৈসলামিক-বিজ্ঞাপনগুলো এড়িয়ে করা যায়, তবে তা থেকে প্রাপ্ত অর্থ হালাল হবে।

পরিশেষ বলতে চাই। ভাল খারপ টা নির্ভর করবে আপনার উপর। আপনি আসলে কিভাবে অর্থ উপার্জন করতে চান।

আগামী পর্বে থাকবে কিভাবে ইউটিউ অর্থ উপার্জন করা যায়।

how to make money on youtube