অ্যান্ড্রয়েড ফোন গ্রাহকদের বিপদ

কিছু মডেলের অ্যান্ড্রয়েড ফোনে এক প্রকার. . .

অ্যান্ড্রয়েড ও আই.এস.ও প্রায় গাহকদের মধ্যে একটা তর্কবিতর্ক দেখা যায়। অ্যান্ড্রয়েড গ্রাহকদের মতে অ্যান্ড্রয়েড এ স্বাধীন ভাবে কাজ উপভোগ করা যায়। কিন্তু এই স্বাধীনতা গ্রাহকদের অনেক ভগান্তির মধ্যে পরতে হয়।বিশেষজ্ঞরা এরি মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের সতর্ক করে দিচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড নির্ভর ফোন কেনার জন্য। এর কারনটি ব্যাখ্যা করে বিশেষজ্ঞরা বলেন, বেশ কিছু অ্যান্ড্রয়েড ফোনে আগে থেকে ই বা প্রি-ইনস্টল হয়ে থাকে ম্যালওয়্যার । এই বিষয়টি জানান সিকিউরিটি সফটওয়্যার নির্মাতা কোম্পানি অ্যাভাস্ট।      

বিশেষজ্ঞদের দাবি, স্বল্প দামের কিছু মডেলের অ্যান্ড্রয়েড ফোনে এক প্রকার অ্যাডওয়্যার আগে থেকেই স্মার্টফোন লুকিয়ে থাকে।এবং যার দারা গ্রাহক এর তথ্য হাকারদের হাতে পেতে সাহায্য করে।

অ্যাভাস্ট স্পেশালিস্টরা বলেন, শেষের তিন বছর ধরেই এই ভাইরাস এর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা আরো বলেন, এটি যেহেতু মোবাইল এ আগে থেকে সংরক্ষিত থাকে ফার্মওয়্যারটি তাই এটাকে মুছে ফেলাও কষ্টসাধ্য।তবে আসার কথা হচ্ছে এর মধ্যে গবেষণা চলছে এই ফার্মওয়্যারটি ধ্বংস করার। খুব শীঘ্রই এন্টিফার্মওয়্যারটি কবে নাগাদ গ্রাহকরা পেতে পারেন তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। 

এভাবেই ঢুকে পড়েছে ক্ষতিকর ম্যালওয়্যার

এভাবেই ঢুকে পড়েছে ক্ষতিকর ম্যালওয়্যার

তবে বিশেষজ্ঞরা গ্রাহকদের একটি টিপস দিয়েছেন, আর তা হলো মোবাইল এর ভিতরে ফার্মওয়্যারটি আছে কি না, তা খুঁজে বের করার জন্য, প্রথম এ সেটিংসের ভেতর ক্রাশ সার্ভিস, আইএমইমেস বা টার্মিনাল নামক অ্যান্ড্রয়েড আইকনে এটি থাকতে পারে। আপনাকে ঐ অ্যাপের পেজে ডিজঅ্যাবল বাটন চেপে তা নিষ্ক্রিয় করতে হবে।

bangladesh mobile price bangladesh android phone bangladesh android phone price